সংখ্যা ভারী কেন্দ্র কমিটি নয় নিবেদিত কেন্দ্র কমিটি চাই – আ জ ম নাছির উদ্দীন

প্রকাশিত: 6:42 PM, October 27, 2020

হাফিজুর রহমান স্টাফ রিপোর্টার
চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থীকে বিজয়ী করতে হলে আমাদেরকে সমন্বিতভাবে পরিকল্পনা নিতে হবে। বিগত নির্বাচন থেকে শিক্ষা নিয়ে এই নির্বাচনে দলের নেতাকর্মীদেরকে কাজে লাগাতে হবে। নির্বাচনী কেন্দ্র কমিটিগুলো তৈরি করার সময় তৃণমূল নেতাকর্মীদেরকে সজাগ সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে।যাতে করে বিতর্কিত,ভিন্ন মতাবলম্বী কেউ কেন্দ্র কমিটিতে স্থান না পায়।নির্বাচনী মৌসুমে সংখ্যা ভারী কেন্দ্র কমিটি করে নেতাদের প্রিয়ভাজন হবেন। অথচ ভোটের বাক্সে ভোট পড়বে না- এমন কাজ আর করতে দেয়া হবে না।

 

বিগত সংসদ উপনির্বাচনে চট্টগ্রাম মহানগরের একটা কেন্দ্রের দৃষ্টান্ত দিয়ে বলা যায়, এই কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনের জন্য তৃণমূল থেকে ১০১ সদস্যের একটা কেন্দ্র কমিটি মহানগর আওয়ামী লীগের কাছে পাঠানো হয়।কিন্তু ঐ কেন্দ্রটিতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী ভোট পেয়েছিল মাত্র ৫৬টি। কেন্দ্র কমিটির সদস্যরাও যদি প্রার্থীকে ভোট দিত তাহলে ঐ কেন্দ্রে আওয়ামীলীগের অন্তত ১০১টি ভোট পাওয়ার কথা। কিন্তু বাস্তবতা এর সম্পূর্ণ বিপরীত হয়েছে।তাই তৃণমূল নেতাকর্মীদের প্রতি অনুরোধ করছি। কেন্দ্রকমিটি করার সময় ত্যাগী,নিবেদিত,পরীক্ষিত ও প্রকৃত নেতাকর্মীদেরকে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। সংখ্যা ভারী কেন্দ্র কমিটি গঠন করে কোন লাভ নেই। নিবেদিত কেন্দ্র কমিটি করতে হবে।

 

আজ মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর ১৭ নং পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ আওতাধীন ১নং,২নং ও ৩ নং ইউনিট আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির পৃথক পৃথক সভায় প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি তৃণমূল নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে একথা বলেন।

 

সভাগুলোতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী।সভায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম রেজাউল করিম চৌধুরী,সাংগঠনিক সম্পাদক নোমান আল মাহমুদ, চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী,বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক মসিউর রহমান, সাংস্কৃতিক সম্পাদক আবু তাহের,ক্রীড়া সম্পাদক দিদারুল আলম,উপপ্রচার সম্পাদক শহীদুল ইসলাম,সদস্য বেলাল আহমেদ,আবদুল লতিফ টিপু,পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ আহবায়ক ইউনুস কোম্পানি, ইউনিট নেতা সেলিম মিয়া, মো. হারুন,শওকত হোসেন,বেলাল হোসেন বাপ্পী,জিয়াউর রহমান, নিজাম কাদের, সরোয়ার আলম ভুঁইয়া, জাহাঙ্গীর আলম রানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।