স্কুল ছাত্রী কে ধর্ষণের চেষ্টা মামলায় সাবেক শিক্ষক হিরন কারাগারে

প্রকাশিত: 8:57 PM, September 9, 2020

আশরাফুল মামুন //  স্কুল ছাত্রী কে ধর্ষণের চেষ্টার মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া নারীশিশু ট্রাইবুনাল এ ১ এক আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে প্রেরণ করেন সাবেক শিক্ষক আশরাফুল আলম হিরণ কে । এর আগে স্কুল ম্যানেজিং কমিটি তাকে সাময়িক বরখাস্ত করেন। সে আখাউড়া মনিয়ন্দ ইউনিয়নের টনকী গ্রামে মৃত ওয়ালী আহাম্মদ ভূঁইয়ার ছেলে এবং সে দীর্ঘদিন যাবৎ মোগড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন, বর্তমানে সে মোগড়া বাজারের স্থায়ী বাসিন্দা হিসাবে বসবাস করেন।

পুলিশ ও মামলা সুত্রে জানা যায়, মোগড়া হাই স্কুলের সপ্তম শ্রেণীর এক ছাত্রী গত ২ জুলাই সকাল ১০ টায় অনন্য মেয়েদের সাথে মোগড়া হাই স্কুলের শিক্ষক আশরাফুল আলম হিরনের বাসায় প্রাইভেট পড়তে যায়। প্রাইভেট শেষে আশরাফুল আলম হিরন মাষ্টার তাকে কৌশলে অন্য একটি রুমে নিয়ে তার শরীরের হাত দেয় এবং ধর্ষণের চেষ্টা করেন। ছাত্রীটি তার মা কে ঘটনাটি জানালে, তার মা এলাকার কয়েক জন গন্যমান্য ব্যক্তিদের দেখিয়ে অত্র স্কুল কমিটি ও স্কুলের প্রধান শিক্ষক বরাবর লিখিত অভিযোগ দেন। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেইসবুক ও নিউজ পোটালে খবরটি ছরিয়ে পরে। ঐ দিনই ছাত্রীটির বাদি হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে আখাউড়া থানায় একটি মামলা করেন। আখাউড়া থানা মামলা নং ৭/৭ ২০২০ মামলার পর থেকে আশরাফুল আলম ইরন মাষ্টার পলাতক থাকাকালীন অবস্থায় ঢাকা হাইকোর্ট থেকে ২২ দিনের জামিন নেয়।

তাতে উল্লেখ ছিল নির্ধারিত সময়ে সংশ্লিষ্ঠ কোর্টে হাজির হওয়ার আদেশ ছিল উক্ত মামলায় আশরাফুল আলম হিরন মাস্টার আজ ৮/৯ /২০২০ তারিখ রোজ মঙ্গলবার আইনজীবীর মাধ্যমে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নারী-শিশু ট্রাইব্যুনালে একএ আত্মসমর্পণ করে আদালতে জামিনের প্রার্থনা করেন আদালত জামিন নামঞ্জুল করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।