লবণের দাম কম হওয়াই লবণ চাষিরা হতাশা হয়ে পড়েছে।

প্রকাশিত: 11:21 AM, June 16, 2020

মিজানুর রহমান, মহেশখালী, প্রতিনিধি //কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলা লবণ নিয়ে বেশি বিখ্যাত। করোনা ভাইরাসের কারণে হতাশা হয়ে পড়েছে লবণ চাষিরা।করোনা ভাইরাসের আগে তারা বেশি দামে লবণ বিক্রি করতো সেটা এখন আর নেই,

 

লবণ চাষি মোহাম্মদ ওয়াসিম (২৫) অফিস পাড়া তাকে জিজ্ঞাসা করিলে তিনি বলেন, আগে আমরা লবণ প্রতি মন ৩৫০/৪০০ টাকায় বিক্রি করতাম। বর্তমানে লবণ বিক্রি হচ্ছে প্রতি মন ১৫০ টাকায়। এতে লবণ চাষিরা বলেন, আমরা লবণ বিক্রি করে লবণের মাঠের দাম ও লবণ শ্রমিকের দাম তুলতে পারবো না। বলে অভিযোগ করে লবণ চাষিরা।

 

 

এখন সারা বিশ্বের মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে তারা তাদের লবন বিক্রি করতে পারছেন না,,, তাই মহেশখালী লবণ চাষিদের মন ভালো নেই

কক্সবাজার: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের শাণিত রূপ নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত কক্সবাজার। ১২০ কিলোমিটারের সমুদ্র সৈকত ঘিরে প্রচীন ঐতিহ্য এবং দর্শনীয় স্থানের কারণে প্রতি বছর কক্সবাজারে ছুটে আসেন বিপুল সংখ্যক পর্যটক। আর শুধু সমুদ্র সৈকত নয় পাশাপাশি রয়েছে বেশ কয়েকটি দর্শনীয় স্থানও। যাতের মধ্যে রয়েছে মহেশখালী!

মহেশখালী দ্বীপের অধিবাসীদের অন্যতম ঐতিহ্যবাহী সুপ্রাচীণ পেশা হল লবণ চাষ।

 

কিন্তু তারা আজ সারা বিশ্বের মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে তাদের পান আর লবণে সঠিক মুল্য পাছে না।

 

করোনা ভাইরাসের আগে তারা বেশি দামে পান এবং লবণ বিক্রি করতো সেটা এখন আর নেই,
কারণ আগে তারা বিভিন্ন জেলায় গিয়ে পান লবণ বিক্রি করতো,, এখন সারা বিশ্বের মহামারি করোনা ভাইরাসের কারণে তারা তাদের লবন বিক্রি করতে পারছেন না।  আল্লাহ আমাদের এই মহামারি করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা করুন,,
আমরা যেন আবার সাভাবিক জীবনে যাপন করতে পারি।