মাগুরায় টেলিভিশন দেখতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী

প্রকাশিত: 8:10 PM, April 3, 2021

মাগুরা প্রতিনিধি; মাগুরার শ্রীপুরে চতুর্থ শ্রেণির এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে নুরনবী মোল্ল্যা (১৯) নামের এক তরুণকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সকালে তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। গ্রেপ্তার নুরনবী উপজেলার বরিশাট গ্রামের নতুন পাড়ার মাংস ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর মোল্ল্যার ছেলে।

 

ধর্ষণের শিকার মেয়েটির বাবা জানান, শুক্রবার সন্ধ্যায় ভুক্তভোগী মেয়েটি তার দাদির সাথে প্রতিবেশী জাহাঙ্গীর মোল্ল্যার বাড়িতে টেলিভিশন দেখতে যায়। দাদিকে সেখানে রেখে মেয়েটি কিছুক্ষণ পর একা একা বাড়ির দিকে রওনা হয়। পথে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা জাহাঙ্গীর মোল্ল্যার ছেলে নূরনবী মেয়েটির গলায় ওড়না দিয়ে মুখ বেঁধে ফেলে এবং পাশের একটি খেতে নিয়ে যায়। পরে সেখানে সে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে এবং পালিয়ে যায়। এরপর মেয়েটি সেখান থেকে প্রতিবেশী এক নারীর বাড়িতে যায় এবং ঘটনা খুলে বলে। পরে প্রতিবেশী সেই নারী নির্যাতিত মেয়েটির বাড়িতে গিয়ে ঘটনা জানালে তারা গিয়ে মেয়েটিকে বাড়িতে নিয়ে যান। রাত ১২ টার দিকে শ্রীপুর থানায় গিয়ে নুরনবী মোল্ল্যাকে আসামি করে পরে তারা মামলা দায়ের করেন।

 

 

ঘটনান সত্যতা স্বীকার করে শ্রীপুর ধানার ওসি (তদন্ত) লিটন কুমার সরকার বলেন, ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মেয়েটিকে মাগুরা পাঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। আসামি নূরনবীকে শনিবার জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।