নবীগঞ্জে ভাষা শহীদ স্মৃতি ক্রিকেট টুনামেন্ট উদ্ভোধন

প্রকাশিত: 3:58 PM, February 17, 2021

হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি //
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে প্রথমবারের মতো ভাষা শহীদ স্মৃতি ক্রিকেট টুনামেন্টের উদ্ভোধন করা হয়েছে।

 

আজ বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১ ঘটিকায় নবীগঞ্জ উপজেলার ৭নং করগাও ইউনিয়নের পুরুষোত্তমপুর খেলার মাঠে বেলুন উড়িয়ে টুর্নামেন্ট উদ্বোধন করেন ৭নং করগাও ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ ছাইম উদ্দিন।

 

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এড. গতি গোবিন্দ দাশ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কমিটির উপদেষ্টা বড় শাখোয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রুবেল মিয়া, সৈয়দ আজিজ হাবিব উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আমিনুর ইসলাম স্বপন, সাবেক মেম্বার মফিজুর রহমান, প্রবাসী মিজান আহমেদ, শাহ আমিনুল হক, হাজী আঞ্জব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক বদরুজ্জামান, মৃনাল কান্তি, ছুরুক মিয়া, সজল মিয়া, আশুক মিয়া, ফয়জুল হক নয়ন, জাতীয় দৈনিক দেশের কন্ঠ পত্রিকার নবীগঞ্জ প্রতিনিধি মোঃ সেলিম উদ্দিন, দৈনিক পরিবর্তনের প্রতিনিধি স্বপন রবি দাশ প্রমুখ।

 

 

টুর্নামেন্টের স্পন্সর করেন সামাজিক সংগঠন সম্প্রীতির হবিগঞ্জ, তারুণ্যের ডাক, এক মুঠো হাসি, আব্দুল হক তালুকদার (দিলু তালুকদার) ফাউন্ডেশন, রিলেশন টু পিপলস, নবীগঞ্জ ইউনাইটেড, তারুণ্যের চোখে স্বদেশ, শৈলা সমাজ কল্যাণ পরিষদ, অক্সপোর্ড, কনফিডেন্স, এডুকেয়ার, আমরা খাই লাল সবুজ যুব সংঘ, লাল সবুজ সমাজ কল্যাণ পরিষদ, গ্রীন লাইট ফার্মেসি, এড-কর্ণার, মহসিন স্টোর, রুমানা স্টোর, মিজান স্টোর, ফারহা টেলিকম, ফোসকা হাউজ, সুমন তালুকদার, রাইছা নুরী, আইনুল হক জুয়েল, মাছনুন, রশিদুল ইসলাম প্রমুখ ।

 

হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জে ভাষা শহীদ স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের খেলা পরিচালনা করছেন এস.পি পাবেল আহমেদ, শামুয়েল ইসলাম, মোঃ মহসিন আহমেদ।

 

দীর্ঘদিন পর নবীগঞ্জে ক্রিকেটের আয়োজন হওয়ায় খেলার মাঠ ও আশাপাশের খালি জায়গায় বিপুলসংখ্যক দর্শক খেলা দেখতে জমায়েত হয়।

 

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে অতিথিরা বলেন, ক্রিকেটে ধীরে ধীরে বাংলাদেশ সর্বোচ্চ শিখরে পৌছে যাচ্ছে, শারীরিক ও মানসিক বিকাশ ঘটাতে ক্রীড়া সাহায্য করে। বর্তমান তরুণ সমাজকে মোবাইল ফোন আসক্তি ও মাদক থেকে দূরে রাখতে এই ধরণের টুর্নামেন্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ক্রিকেট বাঙালির রক্তে মিশে আছে। গ্রাম থেকে দেশের অধিকাংশ ক্রিকেটার জাতীয় দলে সুযোগ পাচ্ছেন। তাই প্রত্যেকটি উপজেলায় খেলাধুলার প্রসারের জন্য স্টেডিয়াম করা প্রয়োজন।

 

টুর্নামেন্টে ১২টি দলের অংশগ্রহণে টুর্নামেন্টে প্রথম পর্যায়ে চারটি গ্রুপে ও পরে আটটি দলের মধ্যে কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনাল ও ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। টুর্নামেন্টের চ্যাম্পিয়ন দলকে এগারো হাজার ও রানার্সআপ দলকে ৫ হাজার টাকা প্রাইজমানি দেওয়া হবে।