ঢাকাMonday , 2 August 2021
আজকের সর্বশেষ সবখবর

টেকনাফে অন্ধ ও শারীরিক প্রতিবন্ধীর জমি জবর দখলের নেয়ার অভিযোগ

Link Copied!

আব্দুর রাজ্জাক,বিশেষ প্রতিনিধি।।
কক্সবাজারের টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়নের
আয়াতুল্লাহ খোমেনী নামের এক আইনজীবীর বিরুদ্ধে অন্ধ ও শারীরিক প্রতিবন্ধীসহ বিভিন্ন জনের জমি জবর দখলের অভিযোগ ওঠেছে। সে আইনজীবী হওয়ার সুবাদে আইন পেশাকে কাজে লাগিয়ে ভূয়া দলিল বানিয়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে জোরপূর্বক জায়গা দখলে নিয়েছে বলে একাধিক ভুক্তভোগীরা জানায়।সে প্রতাপশালী ব্যক্তি হওয়ায় তার বিরুদ্ধে ভয়ে কেউ মুখ খুলে না বলে জানান, স্থানীয়রা।আয়াতুল্লাহ খোমেনীর দখলদারিত্বের বিরুদ্ধে কথা বলার চেষ্টা করলে, তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মামলা হামলার হুমকি দিয়ে দমিয়ে রাখে, এমনটাই প্রতিবেদককে জানিয়েছেন তার অত্যাচারে অতিষ্ঠ একাধিক ব্যক্তি ।

 

গেল কয়েক বছর আগে,জমির আর এস ও বিস’এ ভুল আছে বলে বাহানা করে শামশুদ্দীন নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে সাদা স্টাম্পে স্বাক্ষর নিয়েছেন আয়াতুল্লাহ খোমেনী।পরে শামশুদ্দীনের জমিটাও দখলে নেয় খোমেনী,এমন অভিযোগ শামশুদ্দীনের ।

 

জানা জানা যায়,মকবুল আহমদ, আলমাছ খাতুন (শারীরিক প্রতিবন্ধী), খুরশিদা,সিরাজুল হক,সাহারা খাতুন (দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, যার একটি চোখ নেই), কুলসুমা, তার বাবা নুররাত আলীকেও খোমেনী গংরা পিটিয়ে মেরেছে বলে জানা যায়। হাজেরা খাতুন,হায়দর আলী সহ অনেক মানুষের জমি দখলে করেছে বলে সরেজমিন অনুসন্ধানে গেলে প্রতিবেদককে জানায় ভুক্তভোগীরা।

 

এভাবে কৌশলে বিভিন্ন জনের জমি দখল করেছে এবং বসতভিটা থেকে উচ্ছেদ করেছে বলে জানান অসহায় ভুক্তভোগী একাধিক ব্যক্তি। এমনকি অন্ধ দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী, শারীরিক প্রতিবন্ধী, মুক্তিযোদ্ধা সহ কেউ রক্ষা পাচ্ছে না এই আয়াতুল্লাহ খোমেনীর দখলদারিত্ব থেকে এবং তার কালো ছোবল থেকে এক মুক্তিযোদ্ধার জমিন রক্ষা করতে পারছেনা বলে অভিযোগ করেছেন । কেড়ে নিয়েছে শত শত একর জমি।খোমেনীর অত্যাচার থেকে বাঁচতে স্থানীয় চেয়ারম্যান, মেম্বার ও প্রসাশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

 

এবিষয়ে জানতে চাইলে আয়াতুল্লাহ খোমেনী বলেন,সে এ্যাডভোকেট হওয়ায় আরেক জনের জায়গার অধিকার নিয়ে যেহেতু লড়ে, সেহেতু তিনি অন্যের জায়গা দখল করতে পারেনা বলে জানান।খালি স্টাম্পে দস্তখত নিয়ে জায়গা দখলে নেয়ার কথাটাও সম্পূর্ণ মিথ্যা বলেও জানান তিনি।

error: Content is protected !!