মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০২:২৭ পূর্বাহ্ন
ব্র্যাকিং নিউজ :
সুনামগঞ্জের মধ্যনগরকে উপজেলা হিসেবে অনুমোদন দেওয়ায় আনন্দে ভাসছে মধ্যনগরবাসী খানসামা উপজেলায় লকডাউন বাস্তবায়ন ও বাজার মনিটরিং করছেন এসিল্যান্ড মারুফ হাসান ছাতকে লকডাউনের অযুহাতে সিএনজি- অটোরিকশা খাতে চলছে চরম নৈরাজ্য সাপাহারে কর্মহীন ও অস্বচ্ছল পরিবারে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ বিশ্বনাথে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় অর্থদণ্ড RAB-5 এর অভিযানে গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার-১ অবশেষে র‌্যাবের অভিযানে সেই ধর্ষক সোহাগ গ্রেফতার  বিরামপুর পৌরসভায় করোনাকালীন বিশেষ ওএমএস কার্যক্রমের উদ্ধোধন করলেন-পৌর মেয়র আককাস আলী বিশ্বনাথে মাদক সম্রাট তবারক’ আলী গ্রেফতার বিশ্বনাথে প্রেমিকের হাত ধরে উধাও দুই সন্তানের জননী

করিমগঞ্জে মসজিদে মসজিদে করোনায় সচেতনতা মুলক প্রচারণা পুলিশের।

মোঃ জনি হোসেন করিমগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১৬ জুলাই, ২০২১

মোঃ জনি হোসেন করিমগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
করোনাভাইরাস কোভিড-১৯ সংক্রমণ রোধে জনসচেতনতা বাড়াতে এবং সর্বস্তরের মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে উদ্ধুদ্ধ করতে করিমগঞ্জ উপজেলায় মসজিদ ভিত্তিক প্রচারণা অব্যাহত রেখেছে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।

এ পরিস্থিতিতে করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনসচেতনতা বাড়াতে এবং সর্বস্তরের মানুষকে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে উদ্ধুদ্ধ করতে ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হাবিবুর রহমান বিপিএম (বার),পিপিএম (বার) এর নির্দেশে কিশোরগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার মো. মাশরুকুর রহমান খালেদ বিপিএম (বার) এর দিক-নির্দেশনায় করিমগঞ্জ উপজেলার মসজিদে মসজিদে গিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছে করিমগঞ্জ থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৬ জুলাই)উপজেলা প্রত্যন্ত এলাকার মসজিদ থেকে শুরু করে প্রধান প্রধান মসজিদে জুমআর নামাজের খুতবার সময় সচেতনতা মূলক বক্তব্য রেখেছেন করিমগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)মমিনুল ইসলাম করিমগঞ্জ থানার তদন্ত (ওসি)আনোয়ার হোসেন এবং অন্যান্য পুলিশ কর্মকর্তাগণ।

মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে রাখা বক্তব্যে পরিসংখ্যান উল্লেখ করে করোনার ভয়াবহতার চিত্র তুলে ধরে সংক্রমণ রোধে সবাইকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।এজন্যে সবাইকে মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করা এবং স্বাস্থ্যবিধি ও সরকারি বিধি নিষেধ মেনে চলার অনুরোধ জানান।

তিনি মুসল্লিদের উদ্দেশ্যে বলেন করোনার ভয়া বহ ছোবল থেকে বাঁচতে সবাইকে সচেতন হতে হবে সম্মিলিত ভাবে সবাইকে মাস্ক ব্যবহারের ওপর প্রচারণা চালাতে হবেপাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে আমরা সুরক্ষিত ও নিরাপদ থাকতে পারব।

ওসি) মমিনুল ইসলাম বলেন,করোনাকে নিয়ে হেলাফেলা করার কোন সুযোগ নেই। শহর-গ্রাম সব জায়গায় প্রাণঘাতী এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে আমার পরিবার,আপনার পরিবার কেউই এই ভাইরাসের ঝুঁকি থেকে নিরাপদ নই।তাই দয়া করে বিনা প্রয়োজনে ঘরের বাইরে বের হবেন না। সব সময় মাস্ক পরুন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

তিনি তার বক্তব্যে আরো বলেন, করিমগঞ্জ উপজেলার করোনা পরিস্থিতি পরিসংখ্যান সহ উল্লেখ করোনা ভাইরাসের কারণে শহীদ সৈয়দ নজরুল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উদ্বেগ জনক চিত্র উল্লেখ করে বলেন,হাটবাজারে চায়ের দোকানে অহেতুক আড্ডা দেওয়া কারো জন্যই মঙ্গলজনক নয়। করোনার ভয়াল ছোবল থেকে রক্ষা পেতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা এবং লোকসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে।এছাড়া পশুর হাটে জালনোট চক্রের হাত থেকে সতর্ক থাকা ও সরকারি নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানান পুলিশ কর্মকর্তাগণ।

সব সময় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে ঘন ঘন হাত ধোয়াওহ্যান্ড সেনিটাইজার ব্যবহারের পাশাপাশি সাধ্যমত পুষ্টিকর খাবার গ্রহণেরও পরামর্শ দেন মমিনুল ইসলাম।পাশাপাশি আসন্ন ঈদুল আযহা পালনের কোলাকুলি না করা এবং স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা এছাড়া তিনি সামর্থ্যবান ও বিত্ত শালী মানুষদের প্রতি এই দুঃসময়ে সমাজের অসহায় ও কর্মহীন মানুষের পাশে থাকার জন্য অনুরোধ করেন।

তদন্ত (ওসি) আনোয়ার হোসেন তার বক্তব্যে বলেন,আমরা এক ক্রান্তিকালে দাঁড়িয়ে আছি। করোনা মহামারি সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছেছে।করোনাভাইরাস গ্রামে-গঞ্জে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। তাই আপনারা বিনা প্রয়োজনে কেউ ঘর থেকে বের হবেন না।

অযথা হাটে-বাজারে, চায়ের দোকানে আড্ডা দিবেন না। কোন জরুরী কারণে যদি ঘর থেকে বের হওয়ার প্রয়োজন হয় অবশ্যই মাস্ক ব্যবহার করবেন।বাসায় থাকলে ঘন ঘন হাত ধুবেন ও স্যানিটাইজার ব্যবহার করবেন। একে অপরের সাথে হ্যান্ডশেক ও কোলাকুলি করা থেকে বিরত থাকুন। অবশ্যই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলতে হবে।

তদন্ত (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন,মাস্ক পরা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর গুরুত্বারোপ করে সরকারের বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে এছাড়া কারো। জ্বর, ঠান্ডা, মাথাব্যথা, কাশি,পাতলা পায়খানা এমন কোন উপসর্গ কারো মাঝে থাকলে অবশ্যই নমুনা পরীক্ষা করাতে হবে ও নিকটস্থ হাসপাতালে যেতে হবে। যতটা সম্ভব পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে।

করোনা মহামারিতে অসহায়, দুস্থ ও কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর অনুরোধ জানিয়ে (ওসি) তদন্ত আনোয়ার হোসেন বলেন, ঈদুল আযহা মানে ত্যাগের ঈদ।সামর্থ্যবান বিত্তশালী মানুষরা সমাজের অসহায়, দুস্থ ও কর্মহীন মানুষের এই দুঃসময়ে তাদের পাশে দাঁড়ালে এটিই হবে ঈদুল আযহা উদযাপনের সর্বোৎকৃষ্ট প্রাপ্তি।

তিনি করোনার ভয়াবহ ছোবল থেকে বাঁচতে সবাইকে সচেতন হওয়ার পাশাপাশি মুসল্লিদের এ ব্যাপারে প্রচারণা চালানোর অনুরোধ জানান।

এই জাতীয় আরোও নিউজ দেখুন

ফেসবুকে আমরা আমাদের ফলোও করুন

© All rights reserved © 2018-2021 VORERCOMILLA.COM
ডিজানাইনার বাই এ,কে আজাদ
themesba-lates1749691102
error: Content is protected !!