ঢাকাSaturday , 23 October 2021
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ময়মনসিংহে নিজের গুলিতে বিজিবি সদস্যের আত্মহত্যা

Link Copied!

গোলাম কিবরিয়া পলাশ, ময়মনসিংহ।
ময়মনসিংহে নিজের গুলিতে এক বিজিবি সিপাহী আত্মহত্যা করেছে। নিহতের নাম সোহরাব হোসাইন চৌধুরী (২৩)। সে গতকাল ২২ অক্টোবর ২০২১ তারিখ শুক্রবার দিবাগত আনুমানিক রাত ৮ ঘটিকার সময়ে ফেসবুকে পোস্ট দেয়ার পর রাত আনুমানিক ৯ টায় ময়মনসিংহের খাগডহর এলাকায় অবস্থিত ৩৯ বিজিবি ব্যাটালিয়ন ক্যাম্পে নিজের গুলিতে আত্মহত্যা করেন বলে জানা গেছে। নিহত সোহরাব হোসাইন চৌধুরী (২৩) ফেনী জেলার পরশুরাম উপজেলার বাশপাদুয়া গ্রামের আনোয়ার হোসেন চৌধুরীর ছেলে।

জানা গেছে, ময়মনসিংহ কোতোয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ শাহ কামাল আকন্দ আত্মহত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, সোহরাবের মৃত্যুর আগে গতকাল শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে তাঁর ফেসবুক আইডিতে একটি পোস্ট পাওয়া যায়। সেখানে আর্থিক অনটন নিয়ে দুঃখ-দুর্দশার কথা তুলে ধরা হয়।

পাঠকের সুবিধার্থে স্টাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-
মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্ম নিয়ে ভালো কিছু আশা করা মহাপাপ। নামে সরকারি চাকরি কিন্তু বেতনটা ঐ নামের উপরই ৭ বছর চাকুরি এখনও বাড়িতে গেলে ঠিক মতো একটু কোথাও যাওয়া হয় না ছুটির সময়টাও চোরের মতো থাকতে হয়। গত কিছুদিন আগে আম্মু খুব অসুস্থ হয়ে পড়লো মায়ের চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে গেলাম পরিক্ষা নিরক্ষার পর মায়ের জন্য ঔষধ কিনবো সে টাকা আর হাতে নেই পরে মামার কাছ থেকে ধার নিয়ে মাকে কিছু ঔষধ আর গাড়ি ভাড়া দিলাম।

এমনটা প্রতিমাসেই হতে থাকে। না পারি নিজের খুশি মতো একটা জিনিস কিনতে কিনবা একটা রেস্টুরেন্টে গিয়ে ভালো কিছু খেতে। না পারি পরিবারের চাহিদা পূরণ করতে। তার মধ্যে বর্তমান বাজারের যা পরিস্থিতি এতে বাজার করা কিনবা সংসার চালানো কতটা কঠিন বুঝানোর মতো না। ছোট ভাইটা শারীরিক ভাবে কিছুটা অক্ষম তার জন্য কিছু করবো তার সুযোগ হয়নি এই জীবনে।

এমন পরিস্থিতি মানুষ প্রশ্ন করে বিয়ে করি না কেন। কিন্তু মানুষকে তো আমার সরকারি চাকরির ভেতর টা দেখাতে পারি না আমার বেতন আমার সুযোগ সুবিধা সেভিংস এই সব কিছুতে অন্য একটা মানুষকে আনা আমার জন্য মরার উপর খাঁড়ার খাঁ। তাই বিয়ে শাদীর চিন্তা করিওনা। শুধু খেয়ে পড়ে বেঁচে থাকতে পারলে খুশি এমন চাইলাম তাও আর হয়ে উঠলো না ৭ টা বছর মানসিক যন্ত্রণা আর অভাবের সাথে যুদ্ধ করতে করতে সত্যি বড় ক্লান্ত হয়ে পড়ছি। এইবার একটু রেষ্ট দরকার।

আমার পরিবার সহকর্মী সিনিয়র জুনিয়র আমার বন্ধুদের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি এই নিকৃষ্ট কাজের জন্য পারলে ক্ষমা করবেন এই ছাড়া বিকল্প কোনো পথ আমার ছিল না। তিনি ২০১৫ সালের ২১ জুলাই বিজিবির চাকরিতে যোগদান করেন। পুলিশ জানিয়েছে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজের (মমেক) মর্গে পাঠানো হয়েছে।