ঢাকাWednesday , 20 October 2021
আজকের সর্বশেষ সবখবর

৮নং বিনোদপুর ইউনিয়ন নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ২ বারের সফল চেয়ারম্যান,দেলওয়ার হোসেনের গণসংযোগ

Link Copied!

স্টাফ রির্পোটার, সৌরাব আলী।।
চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার ৮নং বিনোদপুর ইউনিয়নে নৌকা প্রতিকের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ দেলওয়ার হোসেন গণসংযোগে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। রাতদিন পাড়া মহল্লায় ছুটে বেড়াচ্ছেন দলীয় নেতা কর্মী সমর্থক সহ সর্বস্তরের মানুষের কাছে। দেলওয়ার হোসেন দুই বারের সাবেক, সফল চেয়ারম্যান ছিলেন। এলাকায় বেশ জনসমর্থন আছে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা, বর্তমান বিনোদপুর ইউনিয়ন শাখার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ দেলওয়ার হোসেনের। গত ১৯ শে অক্টোবর রাতে তিনি পুরো ইউনিয়ন ঘুরে গণসংযোগ অব্যাহত রেখেছেন। গণসংযোগের সময় তিনি নৌকা প্রতিকে সবার সমর্থন চেয়ে সবার সাথে মিলে মিশে ইউনিয়নের উন্নয়ন মূলক কাজ করে যেতে চান।

এসময় গণসংযোগে উপস্থিত ছিলেন বিনোদপুর শাখা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আঃ সামাদ, ৮নং ওয়ার্ড সম্পাদক মোঃ জার্মান আলী ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইউসুফ আলী, ইউনিয়ন শাখার শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আঃ মকিম, ইউনিয়ন শাখার ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মোঃ মামুনার রশিদ বিশু ও সাধারণ সম্পাদক অসিম কামাল তাজ, ইউনিয়ন

যুবলীগের সভাপতি, মোঃ শরিফুল ইসলাম ডুডু, যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এইচ এম ইসমাইল, সহ-সভাপতি মোঃ শামিম, ইউনিয়ন সহ-সভাপতি ফয়সাল কবির, প্রচার সম্পাদক মোঃ আমানসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী ও সমর্থকেরা উপস্থিত ছিলেন।

মোঃ দেলওয়ার হোসেন ১৯৯৬ সালের আন্দোলনে ৫৪ দিনের কারাবরণ করেন। সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ১৯৯৭-২০০৩ এবং ২০০৩-২০১১ সাল পর্যন্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থেকে ইউনিয়নের ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ করেছিলেন বলে বর্তমানে তিনার একটা জোরালো সমর্থন আছে বলে সরজমিনে প্রতিয়মান হয়। গণসংযোগকালে উৎসুক এলাকাবাসী আগ্রহ সহকারে মোঃ দেলওয়ার হোসেনের সাথে মোলাকাতের জন্য ছুটে আসেন।

দেলোয়ার হোসেন জাতীয় নির্বাচন ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দলীয় দায়িত্ব পালনকালে সফল আহবায়ক’র স্বাক্ষর রাখেন।
তিনি রাজনৈতিক জীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে দলের কাছে গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করেছেন। রাজনৈতিক জীবনে সবার কাছে পরিচিত এক মুখ মোঃ দেলওয়ার হোসেন। তিনি আসন্ন ইউপি নির্বাচনে নৌকা প্রতিকে আওয়ামলীীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচিত হলে প্রতি পাড়া, মহল্লায় উন্নয়ন করে যাবেন বলে আশ্বাস দেন। তিনি জীবনের শেষ সময়টুকু পর্যন্ত জনকল্যাণমূলক কাজ করে যেতে চান।